ব্যাংকের ফাইল ছবি

বাংলার গেজেট প্রতিবেদক : রাজধানীর উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের পশুর হাট সংলগ্ন ব্যাংকের শাখাগুলোতে আজ শনিবার (০৯ জুলাই) খোলা আছে ব্যাংক। সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত চলবে লেনদেন। পাশাপাশি কোরবানির পশুর স্থায়ী ও অস্থায়ী হাটে জালনোট প্রতিরোধে বিনা খরচে নোট যাচাইয়ের সেবা দিচ্ছে ব্যাংকগুলো।
কোরবানির পশুর হাটের ব্যবসায়ীদের নির্বিঘ্নে ব্যাংক লেনদেনের সুবিধার্থে এ নির্দেশনা দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। গতকাল শুক্রবারও সকাল থেকে ব্যাংক খোলা ছিল। এছাড়া তৈরি পোশাক শিল্পে কর্মরত শ্রমিক, কর্মচারী ও কর্মকর্তাদের বেতন-বোনাস ও অন্যান্য ভাতা পরিশোধের সুবিধার্থে আজ শনিবার শিল্প এলাকা সংশ্লিষ্ট ব্যাংকের শাখাগুলো খোলা আছে।
গত ৭ জুলাই বাংলাদেশ ব্যাংক এসংক্রান্ত একাধিক নির্দেশনা জারি করে। বাংলাদেশ ব্যাংক বলছে, পশুর হাটের ক্রেতা ও বিক্রেতারা রাতেও যাতে ব্যাংকে লেনদেন করতে পারেন, সে জন্য এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া তৈরি পোশাকশিল্পে কর্মরত শ্রমিক–কর্মচারীদের বেতন–বোনাস ও অন্যান্য ভাতা পরিশোধের সুবিধার্থে শুক্র ও শনিবার শিল্পসংশ্লিষ্ট এলাকার ব্যাংক খোলা রাখতে বলা হয়েছে। এ কারণে শুক্র ও শনিবার পোশাকশিল্প ও ঢাকার পশুর হাটসংলগ্ন এলাকার ব্যাংক শাখা খোলা থাকবে।
প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, ঢাকা মহানগরী, আশুলিয়া, টঙ্গী, গাজীপুর, সাভার, ভালুকা, নারায়ণগঞ্জ ও চট্টগ্রামে অবস্থিত তফসিলি ব্যাংকের তৈরি পোশাকশিল্প–সংশ্লিষ্ট শাখাসমূহ পর্যাপ্ত নিরাপত্তা নিশ্চিত করে ৮ ও ৯ জুলাই পূর্ণ দিবস খোলা রাখতে হবে। ওই দুই দিন বাংলাদেশ ব্যাংকের ক্লিয়ারিং ব্যবস্থা চালু থাকবে। তবে ক্লিয়ারিং ব্যবস্থা সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার স্বার্থে উল্লিখিত এলাকার বাইরের কোনো শাখার চেক দেওয়া যাবে না।
বাংলার গেজেট/ এম এইচ