বাংলার গেজেট আন্তর্জাতিক ডেস্ক : জাতীয় দল থেকে অবসরের পর আর পাদপ্রদীপের আলোতে নেই মহেন্দ্র সিং ধোনি। আইপিএলে চেন্নাই সুপার কিংসের হয়ে খেলার বাইরে বিজ্ঞাপনেই এখন শুধু ধোনির দেখা মেলে। খবরের বাইরে থাকা ভারতের সাবেক এই অধিনায়ক এবার খবরে এসেছেন। তবে সম্পূর্ণ অক্রিকেটীয় কারণে। অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে মামলা হয়েছে ভারতকে বিশ্বকাপ জেতানো অধিনায়কের বিপক্ষে।
৮১৯ কোটি রুপির মালিকের বিপক্ষে যদি মাত্র ৩০ লাখ রুপি আত্মসাতের অভিযোগ ওঠে তবে ভ্রু কুঁচকে তাকাতেই হয়। আর সেই মামলা যদি হয় ভারতের সাবেক উইকেটকিপার ব্যাটার মহেন্দ্র সিং ধোনির নামে, তাহলে তো কথাই থাকে না। এমনটাই ঘটেছে এবার। ভারতের সাবেক অধিনায়ক ধোনিসহ আটজনের বিপক্ষে চেকবাউন্সের অভিযোগে মামলা হয়েছে বিহারের বেগুসরাইয়ে। অভিযোগ দায়ের করেছে এসকে এন্টারপ্রাইজ নামের একটি সংস্থা।
কৃষিকাজে ব্যবহৃত একটি সারের বিজ্ঞাপন করতে গিয়ে এই মামলায় জড়িয়ে গেছেন ক্যাপ্টেন কুল। ঘটনার সঙ্গে তার সরাসরি সংযোগ না থাকলেও দুই প্রতিষ্ঠানের ব্যবসায়িক সংঘাতের জন্য তাকেও যুক্ত করা হয়েছে মামলায়।
অভিযোগে বলা হয়েছে, নিউ গ্লোবাল প্রোডিউস ইন্ডিয়া লিমিটেড নামের একটি সংস্থা ৩০ লাখ টাকার চেক দিয়েছিল এসকে এন্টারপ্রাইজ নামের সংস্থাটিকে। সেই চেকটি বাউন্স করায় সংস্থাটি বেগুসরাই থানায় মামলা ঠুকে দেয় আটজনের নামে। এই আটজনের একজন হলেন ধোনি।
ধোনি সারের যে বিজ্ঞাপন করেছিলেন, সে বিজ্ঞাপনের কাজ নিয়েই নিউ গ্লোবাল প্রোডিউস ইন্ডিয়া লিমিটেডের সঙ্গে এসকে এন্টারপ্রাইজের চুক্তি হয়। প্রথমে এজেন্সির মালিকের মাধ্যমে নিউ গ্লোবাল প্রোডিউস ইন্ডিয়াকে আইনি নোটিশ পাঠানো হলেও তারা কোনো সদুত্তর দিতে পারেনি। তাই এসকে এন্টারপ্রাইজ প্রতারণার অভিযোগে তাদের বিরুদ্ধে মামলা ঠুকে দিয়েছে। ‘
গত সোমবার এই মামলার শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য করা হয়েছে ২৮ জুন। এসকে এন্টারপ্রাইজের মামলায় ধোনি ছাড়াও আসামি করা হয়েছে নিউ গ্লোবাল প্রোডিউস ইন্ডিয়ার মালিক, স্টেট হেড, মার্কেটিং হেড, এমডি ও মার্কেটিং ম্যানেজারকে।
এই মামলায় ধোনিকে জড়িয়ে আলোচনার জন্ম দিয়েছে এসকে এন্টারপ্রাইজ । ৮১৯ কোটি টাকার মালিক ধোনি বিশ্বের দ্বিতীয় ধনী ক্রিকেটার। ২০২১ সালেই তিনি আয় করেছেন ৭৪ কোটি রুপি। এর মধ্যে শুধু বিজ্ঞাপন থেকেই আয় করেছেন ৫০ কোটি রুপি। সেই ধনির নামেই ৩০ লাখ রুপির মামলা করেছে সংস্থাটি!
বাংলার গেজেট/এম এইচ