বাংলার গেজেট আন্তজার্তিক ডেস্ক : একটি রাজকীয় যুদ্ধজাহাজ ৩৪০ বছর আগে ইংল্যান্ডের পূর্ব উপকূলে ডুবে গিয়েছিল। শুক্রবার গবেষকেরা সেই জাহাজ সংক্রান্ত তথ্য উন্মোচন করেন।
ধ্বংসের হাত থেকে জাহাজটিকে বাঁচাতে এর তথ্য ১৫ বছরের বেশি সময় ধরে গোপন করে রাখা হয়েছিল বলে জানা গিয়েছে। জাহাজটির নাম ‘দ্য গ্লুসেস্টার’।
১৬৮২ সালে ডিউক অব ইয়র্ক জেমসকে নিয়ে যাত্রা করেছিল দ্য গ্লুসেস্টার। ইংল্যান্ডের পূর্ব উপকূলে বালির ঢিবিতে সেটি ধাক্কা খেয়ে ডুবে গিয়েছিল।
জানা গিয়েছিল ‘দ্য গ্লুসেস্টার’ দ্রুত ডুবে গিয়েছিল বলে সেসময় কিছু উদ্ধার করা যায়নি। ইউনিভার্সিটি অব ইস্ট অ্যাংলিয়ার গবেষকদের ধারণা, ওই দুর্ঘটনায় ১৩০-২৫০ জনের মৃত্যু হয়েছিল। তবে অল্পের জন্য বেঁচে গিয়েছিলেন ডিউক অব ইয়র্ক। পরে তিনি ইংল্যান্ডের রাজা হন। তার পরিচয় হয় কিং জেমস টু।
ইউনিভার্সিটি অব ইস্ট অ্যাংলিয়ার আর্লি মডার্ন কালচারাল হিস্ট্রির অধ্যাপক ক্লেয়ার জোভিট বলেন, আবিষ্কারটি ১৭ শতকের সামাজিক, সামুদ্রিক ও রাজনৈতিক ইতিহাসের ধারণাকে মৌলিকভাবে পরিবর্তন করার প্রতিশ্রুতি দেয়। এটি জাতীয় ও আন্তর্জাতিক গুরুত্বের দিক থেকেও অনন্য।
ইংল্যান্ডের পূর্ব উপকূলের গ্রেট ইয়ারমাউথ থেকে ৪৫ কিলোমিটার দূরে এই জাহাজ পাওয়া গেছে। জুলিয়ান ও লিংকন বার্নওয়েল- এই দুই ভাই চার বছর ধরে অনুসন্ধান চালিয়ে ২০০৭ সালে জাহাজটি আবিষ্কার করেছিলেন।
এ তথ্য আড়ালেই রেখেছিলেন তারা। জাহাজের ধ্বংসাবশেষ থেকে বিভিন্ন ঐতিহাসিক প্রতœবস্তু পাওয়া গেছে। এর মধ্যে রয়েছে সিলযুক্ত এক কাচের বোতল। জাহাজ থেকে উদ্ধার হওয়া অন্যান্য প্রতœবস্তুর মধ্যে রয়েছে নেভিগেশন সরঞ্জাম, ব্যক্তিগত জিনিসপত্র, জামাকাপড়, মদের বোতল। কিছু কিছু জিনিস এখনও অক্ষত রয়েছে। সূত্র: জিনিউজ
বাংলার গেজেট/এম এইচ