বাংলার গেজেট প্রতিবেদক : বাংলাদেশ সরকারের প্রধান তথ্য অফিসার মোঃ শাহেনুর মিয়া বলেছেন, এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশের উন্নয়ন-অগ্রগতি বিশ^বাসীকে অবাক করেছে। খুব অল্প সময়ের মধ্যে একটি উন্নয়নশীল দেশ থেকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হওয়ার পিছনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ ১০ উদ্যোগ।
তিনি আজ শুক্রবার (১০ জুন) সকালে খুলনা সার্কিট হাউস সম্মেলনকক্ষে মিট দ্যা প্রেসে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় একথা বলেন। তথ্য অধিদফতর ও খুলনা আঞ্চলিক তথ্য অফিস প্রধানমন্ত্রীর ১০ উদ্যোগ ব্রান্ডিং বিষয়ে এই মিট দ্যা প্রেসের আয়োজন করে।
প্রধান তথ্য অফিসার বলেন, প্রধানমন্ত্রীর সাহসী ১০ উদ্যোগ বাস্তবায়নের ফলে আমরা এখন ২০৪১ সালের উন্নত বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখছি। নিজেদের অর্থায়নে পদ্মা সেতুর মতো মেগাপ্রকল্প বাস্তবায়ন করে বিশে^ নজির স্থাপন করেছি আমরা। এসময় তিনি ডিজিটাল বাংলাদেশ, ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ, আশ্রয়ণ প্রকল্পসহ সরকারের বিভিন্ন সফল কার্যক্রম সাংবাদিকদের সামনে তুলে ধরেন এবং এ বিষয়ে প্রচারণার মাধ্যমে জনগণকে সচেতন করার আহবান জানান। একই সাথে তিনি তথ্য অধিদফতরকে পূর্ণ ডিজিটাল তথ্য অধিদফতরে রূপান্তরের ঘোষণা দেন। তিনি বলেন, ভুইফোড় অনলাইন মিডিয়া নিয়ন্ত্রণে সরকার কাজ করছে। পিআইডি হবে স্যোসাল মিডিয়া ফ্রেন্ডলি, যাতে করে সরকারের উন্নয়ন বার্তা সহজে জনগণের কাছে পৌঁছানো যায়।
মুক্ত আলোচনায় অংশ নিয়ে গণমাধ্যমকর্মীরা বলেন, উন্নয়ন হতে হবে পরিবেশ বান্ধব। আমাদের অবকাঠামোগত উন্নয়ন যেমন দরকার, তেমনি বেঁচে থাকার জন্য অক্সিজেনও অপরিহার্য। তাই যে কোন প্রকল্প গ্রহণের সময় সেটার পরিবেশগত দিক বিবেচনায় নেওয়ার আহবান জানান সাংবাদিকরা।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন তথ্য অধিদফতরের সিনিয়র উপপ্রধান তথ্য অফিসার (প্রশাসন) খালেদা বেগম, সিনিয়র উপপ্রধান তথ্য অফিসার (প্রোটকল) মোঃ আবদুল জলিল, খুলনা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি ফারুক আহমেদ ও প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মামুন রেজা। স্বাগত জানান খুলনা আঞ্চলিক তথ্য অফিসের উপপ্রধান তথ্য অফিসার জিনাত আরা আহমেদ। খুলনার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) এসএম মুনিম লিংকন অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ ১০ উদ্যোগ বিষয়ে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন আঞ্চলিক তথ্য অফিসের সহকারী তথ্য অফিসার মোঃ আতিকুর রহমান মুফতি। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সিনিয়র তথ্য অফিসার মোঃ মঈনউদ্দীন।
মিট দ্যা প্রেস-এ সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তা, সাংবাদিক, ইলেক্ট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ারকর্মীরা অংশ নেন।
বাংলার গেজেট/এম এইচ