যশোর প্রতিনিধি : যশোর চৌগাছার বিশ্বাস পাড়ায় কাঠ মিস্ত্রি রুমান হোসেনকে হত্যার অভিযোগে ৫ জনের বিরুদ্ধে যশোর আদালতে মামলা হয়েছে। আজ সোমবার (২০ জুন) নিহতের পিতা পিরোজপুর সদরের বাইনখালি গ্রামের রফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে এ মামলা করেছেন। জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সালমান আহমেদ শুভ অভিযোগটি গ্রহণ করে এ ঘটনায় থানায় কোন মামলা হয়েছে কিনা, হলে বর্তমান অবস্থা কি তার প্রতিবেদন জমা দেয়ার আদেশ দিয়েছেন চৌগাছা থানার িেওসকে।
আসামিরা হলো চৌগাছার বিশ্বাসপাড়ার তবিবর রহমান চুন্নু বাড়ির ভাড়াটিয়া পিরোজপুর বাইনখালি গ্রামের বাচ্চু হাওলাদার, সুমন হাওলাদার, আল আমিন হাওলাদার, সাইমুন হাওলাদার ও ইমাম হাওলাদার।
মামলার অভিযোগে জানা গেছে, নিহত রুমান হোসেন ও আসামিরা একই গ্রামের বাসিন্দা। তারা চৌগাছার ডিভাইন হাসপাতালে কাঠ মিস্ত্রির কাজ করত। আসামিদের সাথে চুন্নু বাড়িতে রুমানও ভাড়া থাকতো। গত ৫ জুন সকালে প্রবীর ঘুম থেকে উঠে বাইরে যেয়ে দেখে প্রতিবেশী মগরেব আলীর নির্মাণাধীন গরুর ফার্মের লিংটনের সাথে গলায় দড়িবাধা অবস্থায় রুমান ঝুলে আছে। আসামি বাচ্চু পরিবারের কাউকে কিছু না জানিয়ে চৌগাছা থানায় অপরমৃত্যু মামলা করে। এরমধ্যে বাড়ি থেকে নিহতের পিতা ঘটনাস্থলে এসে জানতে পারেন রুমানের লাশ পুলিশ ময়না তদন্তের জন্য যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেছে। এ সময় আসামিদের কাছে রুমানের মৃত্যুর কারন জানতে চাইলে আসামিরা অসংলগ্ন কথা বলে। পারিবারিক বিরোধের জের ধরে বাচ্চুর পরিকল্পনায় অন্যদের সহযোগীতায় রুমানকে হত্যা করা হয়েছে বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে।
বাংলার গেজেট/ এম এইচ