লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি : নড়াইলের লোহাগড়ার শালনগর ইউনিয়নের রামকান্তপুর গ্রামে পুর্ব শত্রুতার জের ধরে আজিজুর বিশ্বাস (৪০) নামে একজনকে পিটিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষরা। নিহত আজিজুর বিশ্বাস ওই গ্রামের মৃতু গহের বিশ্বাসের ছেলে। পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার ময়না তদন্তের জন্য নড়াইল সদর হাসপাতালে প্রেরন করেছে।
পারিবারিক সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার শালনগর ইউপির রামকান্তপুর গ্রামে হাফিজুর মেম্বর ও মিটু সরদার গ্রুপের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। এ বিরোধের জের ধরে কয়েকদিন পুর্বে মিটু সরদারকে মারপিট করে প্রতিপক্ষরা। আজ বুধবার (২২ জুন) বেলা আড়াইটার দিকে হাফিজুর মেম্বর গ্রুপের লোক আজিজুর বিশ্বাস পার্শ্ববর্তী শিয়েরবর হাটে যাচ্ছিল। পথিমধ্যে সবুর সরদারের বাড়ির নিকট পৌছালে প্রতিপক্ষের লোকজন পরিকল্পিত ভাবে আজিজুর বিশ্বাসের ওপর হামলা চালায়। এক পর্যায়ে আজিজুর বিশ্বাসকে ধাওয়া করে সবুর সরদারের বাড়ির ভিতর নিয়ে প্রতিপক্ষের সিজান,ওমর,বক্কারসহ ৬/৭ মিলে আজিজুর বিশ্বাসকে লোহার রড় ও হাতুড়ী দিয়ে বেধড়ক মারপিট করে গ্ররুতর আহত করে। পরে স্থানীয় লোকজন আহত আজিজুর বিশ্বাসকে উদ্ধার করে লোহাগড়া হাসপাতালে আনলে কর্তব্যরত চিকিৎক তাকে মৃত্যু বলে ঘষোনা করেন। এ বিষয়ে শালনগর ইউপি চেয়ারম্যান লাবু মিয়া বলেন,নির্বাচনের সময়ে নিহত আজিজুর বিশ্বাস আমার নৌকার পক্ষে কাজ করছিল সেখান থেকে মিটু সরদারের সাথে ঝামেলা হয়ে আসছিল। আজ আজিজুর বিশ্বাসকে পিটিয়ে হত্যা করেছে এবং তিনি এ হত্যাকারীদের বিচারের দাবী জানান।
এবিষয়ে লোহাগড়া থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি)আবু হেনা মিলন হত্যার বিষয় নিশ্চিত করে বলেন, ওই এলাকায় অতিরিক্তি পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে এবং এলাকা এখন শান্ত আছে। ঘটনার সাথে জড়িতদের আটকের চেষ্টা চলছে।
বাংলার গেজেট/ এম এইচ