মোরেলগঞ্জ (বাগেরহাট) প্রতিনিধি : বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে কাল থেকে শুর” হচ্ছে শততম গোপাল চাঁদ বারুণী মেলা। বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই মদন ত্রয়োদশী তিথিতে ভক্তের সমাগমে উৎসব মুখর হয়ে উঠেবে বারুণী স্নান। দেশের ৪শ’টি দলসহ পার্শ্ববর্তী ভারত, নেপাল, ভূটান থেকে প্রতিবছর লক্ষাধীক ভক্ত গোপাল চাঁদের আশ্রমে বারুণী স্নানে অংশ গ্রহন করে থাকেন। স্নানৎসব উপলক্ষে প্রতিবছর এখানে তিনদিনের মেলা বসে। আজ বুধবার থেকেই দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে মতুয়া ভক্তরা লক্ষীখালী গ্রামের গোপাল চাঁদ সাধু ঠাকুরের আশ্রম মাঠে যেতে শুরু করেছেন।
বর্তমান গদিনশিন মতুয়াচার্য সাগর সাধু ঠাকুর জানান, গোপাল সাধুর এ ধামে এ পর্যন্ত চার পুরুষ গত হয়েছেন। শ্রীশ্রী হরিচাঁদ ঠাকুরের জন্ম স্মরণে বাংলা ১৩২৮ সাল থেকে এখানে মতুয়া ভক্তদের সমাগম ঘটছে যা এখন ‘গোপাল সাধুর’ মেলা নামে পরিচিত।
মতুয়া ভক্তরা প্রতি বছর মধুকৃষ্ণা পূর্ণিমার ত্রয়োদশী তিথিতে ওড়াকান্দিতে হরিচাঁদ ঠাকুরের জন্মোৎসব পালন করেন। যা এখন বারুণী স্নান ও মহামেলা নামে পরিচিত। ওড়াকান্দি মেলার ১৫দিন পরে ‘ঠাকুরের দোয়ালীয়া বাড়ি’ গোপাল চাঁদের লীলা নিকেতন মোরেলগঞ্জের লক্ষীখালীতে প্রতি বছর অনুষ্ঠিত হয় বারুণী স্নান ও মেলা।
প্রায়াত গোপাল সাধুর বসতবাড়িসহ ২৪ বিঘার বাগানবাড়িতে বসবে এ মেলা। দিঘীতে স্নান করবে ভক্তরা। মেলা ও স্নান নিয়ন্ত্রনের জন্য পুলিশ, আনছার-ভিডিপি ও স্থানীয় ৩শ’ স্বেচ্ছাসেবক কাজ করছেন।
বাংলার গেজেট/ এম এইচ