পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি : পাইকগাছার গদাইপুরস্থ জেলা পরিষদের সরকারি পুকুরে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে এবার পাল্টা সংবাদ সম্মেলন করেছে ইউনিয়ন পরিষদের দুই ইউপি সদস্য।
আজ বৃহস্পতিবার (১২ মে) সকালে প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলন করেন গদাইপুর ইউনিয়ন পরিষদের ৭নং ওয়ার্ডের সদস্য শেখ হারুন অর রশিদ হিরু ও ৮নং ওয়ার্ডের সদস্য আনিছুর রহমান। দুই ইউপি সদস্য সংবাদ সম্মেলনে উল্লেখ করেন, আমাদের প্রতিপক্ষ দুই সাবেক ইউপি সদস্য শেখ আতাউর রহমান ও জবেদ আলী কারিকর তারা দীর্ঘদিন এলাকায় সমাজ বিরোধী কর্মকান্ড করে আসছিল। ফলে এবারের নির্বাচনে জনগণ তাদেরকে প্রত্যাখ্যান করে আমাদেরকে নির্বাচিত করেছে। এতে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে আমাদের বিরুদ্ধে নানা ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে।
দুই ইউপি সদস্য বলেন, ইউনিয়নের গদাইপুর নামক স্থানে খুলনা জেলা পরিষদের একটি সরকারি পুকুর রয়েছে। পুকুরটি পিএসএফ স্থাপন করার মাধ্যমে জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত রাখা হয়েছে। যার ফলে পুকুরের আশে পাশের লোকজন পুকুরটিতে মাছ ছাড়ে। মাছ গুলো বড় হওয়ায় গত ২৩ এপ্রিল তারা নিজেরাই পুকুরের মাছ ধরে। এটা জানতে পেরে আমরা দুই মেম্বর মাছ দেখতে সেখানে যায়। মাছ দেখার পরে কিছুক্ষন পর আমরা সেখান থেকে চলে আসি। বিষয়টি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে সাবেক দুই মেম্বর এলাকার কতিপয় ব্যক্তি সরদার কাজল, মিজানুর রহমান টুটুল ও ফজর আলী সহ কয়েকজন ব্যক্তিকে দিয়ে প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ দেয় এবং আমাদের বিরুদ্ধে ৯ মে প্রেসক্লাবে মিথ্যা সংবাদ সম্মেলন করে। সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এসব ঘটনার তীব্রনিন্দা ও প্রতিবাদ জানান এবং কতিপয় ব্যক্তিদের মিথ্যা তথ্যে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য এলাকাবাসী এবং প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষন করেন বর্তমান দুই ইউপি সদস্য শেখ হারুন অর রশিদ এবং আনিছুর রহমান।
বাংলার গেজেট/ এম এইচ