শরণখোলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি : বাগেরহাটের শরণখোলায় ক্ষুধার্থ অজগর সুন্দরবন থেকে হাঁস খেতে এসে ধরা পড়ল। গতকাল বুধবার সকালে শরণখোলা উপজেলার সুন্দরবন সংলগ্ন সোনাতলা গ্রামের আবদুর রাজ্জাক হাওলাদারের বাড়ির হাঁসের খোপ থেকে বিশালাকৃতির অজগরটিকে উদ্ধার করা হয়। খবর পেয়ে সুন্দরবন কমিউনিটি পেট্রলিং গ্রুপের (সিপিজি) সদস্যরা এই অজগরটি উদ্ধার করে দুপুরে শরণখোলা রেঞ্জ সংলগ্ন বনে অবমুক্ত করে।
বাড়ির মালিক আবদুর রাজ্জাক হাওলাদার বলেন, সকালে হাঁস-মুরগির অস্বাভাবিক ডাকাডাকিতে আমাদের ঘুম ভাঙে। বুঝতে পারি হাঁসের খোপে কিছু একটা প্রবেশ করেছে। খোপের মুখ খুলে দেখতে পাই একটি অজগর শুয়ে রয়েছে। পরবর্তীতে সিপিজি’র সদস্যদের খবর দিলে তারা এসে অজগরটি উদ্ধার করে। মনে হয় রাতের কোনো একসময় অজগরটি হাঁসের খোপে প্রবেশ করেছে। খোপে প্রবেশ করে আমাদের তিনটি রাজহাঁস ও একটি পাতি হাঁস খেয়েছে অজগরটি।
পূর্ব সুন্দরবনের শরণখোলা স্টেশন কর্মকর্তা (এসও) মো. আসাদুজ্জামান বলেন, ক্ষুধার জ্বালায় সুন্দরবন থেকে লোকালয়ে এসে অজগরটি রাজ্জাকের হাঁস-মুরগি খাওয়ার পর এটিকে উদ্ধার করা হয়েছে। অজগরটি ১২ ফুট লম্বা এবং ওজন প্রায় ১৬ কেজি। অজগরটিকে সুন্দরবনে অবমুক্ত করা হয়েছে। এর আগেও কয়েকটি অজগর লোকালয়ে আসে খাবারের সন্ধানে। পরবর্তীতে সেগুলো সুন্দরবন অবমুক্ত করা হয়।
বাংলার গেজেট/ এম এইচ